শচীনের চোখে বিশ্বকাপে ফেবারিট দল একটাই

চলতি মাসের ৩০ তারিখে অনুষ্ঠিত হবে ওয়েলস এন্ড ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ। সে লক্ষ্যে প্রস্তুতি সারছে অংশগ্রহণকারী ১০ দল। সবারই লক্ষ্য যে কোন মূল্যে শিরোপা জেতা। কিন্তু নিয়ম অনুযায়ী, একটি দলের ঘরে যাবে শিরোপা।

বিশ্বকাপ কে জিতবে, কার ঘরে যাবে শিরোপা এ নিয়ে ভক্ত-সমর্থকদের মাঝে জল্পনা-কল্পনার কমতি নেই। তবে ক্রিকেটবোদ্ধা এবং সমর্থকেরা নিজের পছন্দ মত ফেবারিট টিমের নাম বলছেন।

ঠিক তেমনই দ্বাদশ বিশ্বকাপে ফেবারিট টিমের নাম জানালেন ব্যাটিং-ঈশ্বর শচীন টেন্ডুলকার। তার মতে এবারের বিশ্বকাপে ভারতের সম্ভাবনা প্রবল। তার মতে, ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে শিরোপা জিতবে বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন ভারত। মুম্বাইয়ে চ্যারিটি অনুষ্ঠানে আসন্ন বিশ্বকাপের আরও কিছু বিষয় নিয়ে মতামত দিয়েছেন শচীন। তার মতে, ইংল্যান্ডে খেলা হলেও এবারের বিশ্বকাপে ব্যাটসম্যানদের দাপট দেখা যাবে।

বৃহস্পতিবার মিডলসেক্স গ্লোবাল একাডেমির গ্রীষ্ফ্মকালীন ক্যাম্প উদ্বোধন করতে গিয়ে ভারতের সম্ভাবনার কথা বলেন শচীন, ‘বিশ্বকাপ ভারতে আসছে।’ এর কিছুক্ষণ পর মুম্বাইয়ের নিজের নামে প্রতিষ্ঠিত এমআইজি ক্লাবের প্যাভিলিয়ন উদ্বোধন করতে গিয়েও গণমাধ্যমের কাছে একই কথা বলেন কিংবদন্তি এ ব্যাটসম্যান।

বিশ্বকাপে যে ব্যাটসম্যান দাপট দেখা যাবে, সেটাও তিনি সেখানে বলেছেন, ‘শুনেছি বিশ্বকাপের সময় খুব গরম থাকবে। দুই বছর আগে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সময় কিন্তু উইকেট দুর্দান্ত ছিল। তখনও গরম ছিল বলেই উইকেট ভালো ছিল। সূর্যের আলোয় পিচ থেকে সব আর্দ্রতা চলে যায়। তাপমাত্রা যত বাড়বে, উইকেট ততই ব্যাটসম্যানদের সাহায্য করবে। আমি নিশ্চিত, বিশ্বকাপ পুরোপুরি ব্যাটিং সহায়ক পিচে খেলা হবে।’ ইংল্যান্ডে খেলা হচ্ছে বলেই অনেকে মনে করছেন পেসাররা উইকেট থেকে বেশ সাহায্য পাবেন। সুইং দিয়ে ব্যাটসম্যানদের কাবু করতে পারবেন। কিন্তু শচীনের ভাবনা উল্টো। যদি আকাশে রোদ থাকে তাহলে বোলাররা উইকেট থেকে তেমন কোনো সুবিধা পাবে না বলেই তিনি মনে করছেন, ‘চড়া রোদের মধ্যে বোলাররা তেমন একটা সুবিধা পাবে না। পার্থক্য গড়ে দিতে পারে মেঘে ঢাকা আকাশ। সেই সময় বল নড়াচড়া করতে পারে। কিন্তু সেটাও বেশিক্ষণ হবে না। দু-এক ওভার পর থেকেই সুইং বন্ধ হয়ে যাবে।’