মিরাজের সাফল্যের রহস্য

ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে ১৯৮ রানেই গুটিয়ে যায় সফরকারীরা। ব্যাট হাতে ১৯৯ রানের সহজ লক্ষ্যে নেমে বাংলাদেশ তুলে নিলো ৮ উইকেটের বড় জয়। আরেকবার বছরে টানা তিনটি ওয়ানডে সিরিজ জয়ের সোনালি সাফল্যে উদ্ভাসিত হলো লাল সবুজের দল।

দারুণ এই জয়ের পর চার উইকেট পেয়ে ম্যান অব দ্য ম্যাচের খেতাবজয়ী মেহেদি হাসান মিরাজ বলেন, ‘খুবই ভালো লাগছে। আমাদের টসটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ ছিল। মাশরাফি ভাই টসে জিতেছেন, ভাগ্য আমাদের পক্ষে ছিল বলেই। টস জিতে আমরা ফিল্ডিং করেছি, উইকেটটাও ওরকমই ছিল।স্যাঁতস্যাঁতে ছিল যেখানে প্রথম দিকে স্পিনাররা সহায়তা পাবে।’

টেস্ট ক্রিকেটে নিজেকে প্রমাণের পর মিরাজ এখন ওয়ানডে ফরম্যাটেও দারুণ ধারাবাহিক। যার শুরুটা হয়েছে চলতি বছরের জুলাইয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ থেকে। সিরিজের তিন ম্যাচে ১টি করে উইকেট শিকারি মিরাজ সেপ্টেম্বরে এশিয়া কাপের ৬ ম্যাচ থেকে আদায় করেছেন ৪টি উইকেট। অক্টোবরে ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ে সিরিজে তিন ম্যাচ সিরিজের দুটি থেকে তুলে নিয়েছেন ৪ উইকেট। আর ক্যারিবিয়ানদের সঙ্গে মাত্রই শেষ হওয়া সিরিজে তিন ম্যাচে তার উইকেট ৬টি।

এ ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘যখন টেস্ট শুরু করলাম তখন থেকেই ভাবতে শুরু করেছি এখানে ভালো করে কি করে ওয়ানডেতে খেলা যায়। জুলাইয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ থেকে আমি নিয়মিত দলে খেলছি।’

‘আমার কাছে যেটা মনে হয় এখানে গুরুত্বপূর্ণ হলো রান চেক বোলিংটা। আমি যদি রান চেক দিয়ে বোলিং করি, তাহলে অধিনায়ক আমার ‍ওপর আস্থা রাখবে। এটাই আমি চেষ্টা করছি।’