বিশ্বকাপে সেমি-ফাইনাল খেলবে যে চার দল

নিজের ফেভারিট বাছলেন সুনীল গাভাস্কর। বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনাল খেলবে ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ভারত। জানিয়ে প্রথম দলকেই কাপ জয়ের দৌড়ে এগিয়ে রাখছেন ভারতীয় লেজেন্ড সুনীল গাভাস্কর। বিশ্বকাপ খেলিয়ে দেশগুলির গত দুই বছরের ধারাবাহিকতার নিরিখেই তাঁর ধারণার কথা জানিয়েছেন সানি। বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডকে ফেভারিট ধরার পিছনে বেশকিছু যুক্তিও খাড়া করেছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন ওপেনার।

২০১৫ সালের বিশ্বকাপে ভরাডুবির পর ইংল্যান্ড ক্রিকেটে এক কথায় বলতে গেলে নবজাগরণ আসে। প্রচুর প্রতিভাবান তরুণ ক্রিকেটারদের দলে জায়গা দেওয়া হয়। বলতে গেলে এরপরেই ইংল্যান্ড ক্রিকেটের সুদিন ফিরতে শুরু করে। গত পাঁচ বছরে ইংলিশ ক্রিকেট শুধু ঘুরে দাঁড়ায়নি, ইয়ন মর্গ্যানের যোগ্য অধিনায়কত্বে বিশ্বের তাবড় দলগুলিকে ঘোল খাইয়ে আইসিসির ওয়ান ডে র‌্যাঙ্কিংয়ে এক নম্বর স্থান দখল করেছে। গত দুই বছরে অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা ও ভারতের বিরুদ্ধে মর্গ্যানদের ঝকঝকে ওয়ানডে রেজাল্ট তাদের বিশ্বকাপ জয়ের দাবিদার করেছে বলেই মনে করেন সুনীল গাভাস্কর।

২০১১ সালে ভারতে অনুষ্ঠিত হয়েছিল বিশ্বকাপ। ঘরোয়া পরিবেশের সুবিধা নিয়ে সেবার কাপ তুলেছিলেন মহেন্দ্র সিং ধোনিরা। একই ভাবে ২০১৫ সালেও নিজেদের দেশে বিশ্বকাপ জিতেছিল অস্ট্রেলিয়া। সেদিক থেকে দেখতে গেলে ইয়ন মর্গ্যানের ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের কাছেও এবার ঘরোয়া পরিবেশে কাপ জয়ের সুবর্ণ সুযোগ রয়েছে। যদিও এর আগে চার বার ইংল্যান্ডের মাটিতে আয়োজিত হয়েছিল ক্রিকেট বিশ্বকাপ। কিন্তু প্রতিবারই সমর্থকদের নিরাশ করেছেন ব্রিটিশ ক্রিকেটাররা। তাই এবার মর্গ্যান, রুটরা মরিয়া চেষ্টা চালাবেন বলেই মনে করেন সুনীল গাভাস্কর।

ইংল্যান্ডকে এগিয়ে রাখলেও ভারতীয় ক্রিকেট দলের বিশ্বকাপ জয়ের সম্ভাবনা পুরোপুরি উড়িয়ে দেননি লেজেন্ড সানি। অধিনায়ক বিরাট কোহলির লড়াকু মনোভাব এবং দলের বাকি খেলোয়াড়দের নাছোড় মানসিকতা ভারতীয় ক্রিকেট দলকেও বিশ্বকাপ জয়ের দোড়গোড়ায় নিয়ে যেতে পারে বলে মনে করেন সুনীল গাভাস্কর। তাঁর কথায়, অনিশ্চয়তার নাম ক্রিকেট। আর যে দলে বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা, মহেন্দ্র সিং ধোনিদের মতো ক্রিকেটাররা রয়েছেন, সেখানে মিরাকেল হতে পারে বলেই আশা প্রকাশ করেছেন এই প্রাক্তন ভারতীয় লেজেন্ড।

বিশ্বকাপের জন্য তৈরি করে ইংল্যান্ডের পিচ স্পোর্টিং হবে বলেই মনে করেন সুনীল গাভাস্কর। পিচে পেস, বাউন্স দুই থাকবে এবং তাতে ব্যাটসম্যানদের ফ্রি শট খেলতে সুবিধা হবে বলেও মনে করেন সানি। সব মিলিয়ে এই টু্র্নামেন্ট অন্যতম আকর্ষণীয় হতে চলেছে বলেই দাবি সুনীল গাভাস্করের।