বিগ ব্যাশ চ্যাম্পিয়ন মেলবোর্ন রেনেগাডস

অষ্টমবারের আসরে এসে প্রথমবার ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছিলো মেলবোর্ন রেনেগার্ডস। আর প্রথমবারেই শিরোপা ঘরে তুলেছে অ্যারন ফিঞ্চের দল। বিগ ব্যাশের ফাইনালে নগর প্রতিদ্বন্দ্বী মেলবোর্ন স্টার্সকে ১৩ রানে হারিয়ে প্রথম শিরোপার স্বাদ পেলো টম কুপাররা। আর এবারই প্রথম বিগ ব্যাশের ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল একই নগরের দুই প্রতিদ্বন্দ্বী। মেলবোর্ন ডার্বিতে হেরে শেষ পর্যন্ত রানার্সআপ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হচ্ছে ম্যাক্সওয়েলকে।

শুরুতে ব্যাটিং করে নির্ধারিত ২০ ওভারে টম কুপার ও ডেনিয়েল ক্রিশ্চিয়ানের ব্যাটে ভর করে ১৪৫ রানের সংগ্রহ দাঁড় করিয়েছিল রেনেগাডস। যদিও ফিঞ্চের দলের শুরুটা একেবারেই ভালো ছিল না। তবুও শেষ দিকে ক্রিশ্চিয়ান ও কুপারের ৮০ রানের জুটিতে এই রান তোলে শিরোপাধারীরা। ১৪৬ রানের জবাবে খেলতে নেমে ৭ উইকেট হারিয়ে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৩২ রান তুলতে পারে স্টার্স। ফলে ১৩ রানে হেরে শিরোপা হাতছাড়া হয় ম্যাক্সওয়েলদের।

এই দিয়ে ফাইনালে মোট দ্বিতীয়বার হারলো স্টিফেন ফ্লেমিংয়ের শিষ্যরা। স্টার্সরা এর আগে ২০১৫-২০১৬ মৌসুমেও বিগ ব্যাশের ফাইনালে উঠেছিল। সেবারও শিরোপার স্বাদ থেকে বঞ্চিত হয়েছিল মেলবোর্ন স্টার্স।

১৪৬ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে দুই ওপেনারের দারুণ শুরুতে ভালো জবাব দিতে শুরু করেছিল রেনেগাসডরা। ৯৩ রানের ওপেনিং জুটি উপহার দিয়ে এই জুটি ভাঙার পর শুরু হয় পতন। পরের ১৫ রানে ফিরে যান আরও ৬জন ব্যাটসম্যান। ফলে রীতিমত ব্যাকফুটে চলে যায় ম্যাক্সওয়েলরা। বেন ডাঙ্ক (৫৭) ও মার্ক স্টোইনিস (৩৯) ছাড়া আর কেউই দুই অঙ্কের কোটাতে যেতে পারেননি।

তবে নির্ধারিত বিশ ওভারের পুরোটাই খেলেছিল স্টার্সরা। কিন্তু টার্মেইন, রিচার্ডসন ও গার্নের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের সামনে রান বাড়াতে পারেননি কেউই। ফলে জয় থেকে ১৪ রান দূরে থাকতেই বোলিং কোটা খুইয়ে ফেলে দ্বিতীয়বারের মতো শিরোপা হাতছাড়া করে গ্রীন টিম।

রোববার মেলবোর্নের ডকল্যান্ড স্টেডিয়ামে কাক্সিক্ষত ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল দুই নগর প্রতিদ্বন্দ্বী। ম্যাক্সওয়েল বাহিনী টস জিতে ব্যাটিংয়ে পাঠান অ্যারন ফিঞ্চকে। ব্যাটিংয়ে নেমে অ্যাডাম জাম্পা ও জ্যাকসন বার্ডের বোলিংয়ে দিশেহারা হয়ে ৬০ রানের পরই ৫ উইকেট হারিয়ে বসে রেনেগাডস।

বিপদে পড়া দলকে টেনে তোলেন টম কুপার ও ডেনিয়েল ক্রিশ্চিয়ান জুটি। ৯.৪ ওভার ব্যাটিং করে এই জুটি স্কোরবোর্ডে ৮০ রান যোগ করেন। পরে আর কোন উইকেট হারায়নি রেনেগাডসরা। কুপার ৩৫ বলে ৪৩ এবং ক্রিশ্চিয়ান ৩০ বলে ৩৮ রানে অপরাজিত ছিলেন।