পাকিস্তানের বিপক্ষে হারের ম্যাচে জরিমানা দুই ব্রিটিশ তারকার

একে তো পাকিস্তানের কাছে হারের জ্বালা৷ তার উপর ইংল্যান্ডের যন্ত্রণা বাড়াল দলের দুই তারকার শাস্তি৷ ট্রেন্ট ব্রিজে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপের ম্যাচে আইসিসি’র আচরণবিধি ভাঙার জন্য শাস্তি হল ওপেনার জেসন রয় ও পেসার জোফ্রা আর্চারের৷

জেসন রয় আইসিসি’র কোড অফ কন্ডাক্টের ২.৩ ধারায় দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন৷ মাঠে অভদ্র আচরণ বা অশ্রাব্য শব্দ ব্যবহারের জন্য এই ধারায় অভিযুক্তের শুধু জরিমানাই হয় না, তার ডিসিপ্লিনারি রেকর্ডে ডিমেরিট পয়েন্টও যোগ হয়৷

পাক ইনিংসের ১৪ তম ওভারে মিস ফিল্ডিংয়ের পর অশ্রাব্য শব্দ উচ্চারণ করেন, যা আম্পায়ারের কানে গিয়ে পৌঁছয়৷ ম্যাচের শেষে ফিল্ড আম্পায়ার মরিস এরাসমাস ও এস রবির রিপোর্টের ভিত্তিতেই জেসনের ম্যাচ ফি’র ১৫ শতাংশ জরিমানা করেন ম্যাচ রেফারি জেফ ক্রো৷ একই সঙ্গে তাঁর ডিসিপ্লিনারি রেকর্ডে যোগ হয় একটি ডিমেরিট পয়েন্ট৷

জোফ্রা আর্চার দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন কোড অফ কন্ডাক্টের ২.৮ ধারায়৷ আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে অসন্তোষ প্রকাশ করার জন্য তাঁর ম্যাচ ফি’র ১৫ শতাংশ জরিমানা হয়েছে৷ পাক ইনিংসের ২৭তম ওভারে একটি ওয়াইড বলের সিদ্ধান্তে প্রতিক্রিয়া দেখান আর্চার৷ তাঁর ডিসিপ্লিনারি রেকর্ডেও একটি ডিমেরিট পয়েন্ট যোগ হয়৷

২৪ মাসের মধ্যে ডিসিপ্লিনারি রেকর্ডে চারটি ডিমেরিট পয়েন্ট যোগ হলে তা সাসপেনসন পয়েন্টে পরিণত হয়৷ সাধারণত ২টি সাসপেনসন পয়েন্টের জন্য একটি টেস্ট বা ২টি সীমিত ওভারের ম্যাচ থেকে নির্বাসিত হন সংশ্লিষ্ট ক্রিকেটার৷

শুধু জেসন রয় ও আর্চারেরই নয়, ম্যাচে স্লো ওভাররেটের জন্য শাস্তি হয়েছে গোটা পাকিস্তান দলের৷ নির্ধারিত সময়ে ৫০ ওভারের বোলিং কোটা পূর্ণ করতে পারেনি পাকিস্তান৷ সবদিক বিবেচনা করে আইসিসি’র হিসাব অনুযায়ী নির্ধারিত সময়ে এক ওভার কম বল করেছে পাকিস্তান৷

আইসিসি’র কোড অফ কন্ডাক্ট অনুযায়ী এটা মাইনর ‘স্লো ওভার রেট’এর ঘটনা হিসাবে বিবেচিত হয়৷ যার শাস্তি স্বরূপ পাক দলনায়ক সরফরাজের ম্যাচ ফি’র ২০ শতাংশ কেটে নেওয়া হয়৷ শাস্তির আওতায় পড়েছে দলের বাকি ক্রিকেটাররাও৷ তাঁদেরও ম্যাচ ফি’র ১০ শতাংশ জরিমানা করা হয়েছে৷

নটিংহ্যামে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটের বিনিময়ে ৩৪৮ রানের বিশাল ইনিংস গড়ে তোলে পাকিস্তান৷ জবাবে ইংল্যান্ড ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ৩৩৪ রানে শেষ করে তাদের ইনিংস৷ ১৪ রানের সংক্ষিপ্ত ব্যবধানে ম্যাচ জেতে পাকিস্তান৷