কোহলিদের হতাশা ভুলিয়ে ইনস্টাগ্রাম সেনসেশন ‘আরসিবি গার্ল’

শনিবার সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে হারিয়ে চূড়ান্ত হতাশাজনক আইপিএল মৌসুমের পরিসমাপ্তি ঘটেছে ব্যাঙ্গালোর ফ্র্যাঞ্চাইজির। ১৪ ম্যাচ মাত্র ১১ পয়েন্টে শেষ করে চলতি আইপিএলে ‘লাস্ট বয়’ বিরাট অ্যান্ড কোং। মৌসুম শেষে পারফরম্যান্স নিয়ে কাটাছেঁড়া চলছে বিস্তর। এরই মধ্যে বিরাটদের আইপিএল পারফরম্যান্স ছাপিয়ে হঠাতই সামনের সারিতে এলেন তাদের এক লেডি ফ্যান।

হ্যাঁ, ঠিকই ধরেছেন। শনিবার চিন্নাস্বামীর গ্যালারিতে যাকে দেখে ঝড় উঠেছিল জেন ওয়াইয়ের হৃদয়ে। মুহূর্তের মধ্যে ইন্টারনেটে অযাচিতভাবেই ‘ক্রাশ’ শব্দটা জুড়ে গিয়েছিল যার নামের সঙ্গে। তিনি দীপিকা ঘোষ। নিমেষের মধ্যে তাঁর ভাইরাল হওয়ার ঘটনা মনে করিয়ে দিয়েছে বছর দেড়েক আগে মালায়ালি অভিনেত্রী প্রিয়া প্রকাশের সেই ভিডিও। চোখের ইশারায় রাতারাতি ইন্টারনেট সেনসেশন বনে গিয়েছিলেন যিনি।

শনিবার চিন্নাস্বামীর গ্যালারি থেকে ঝড় তোলার পর আরসিবি গার্ল রাতারাতি সেনসেশন সোশ্যাল মিডিয়াতেও। আদতে দিল্লির বাসিন্দা হলেও দেশজুড়ে দীপিকার নতুন পরিচিতি ‘আরসিবি গার্ল’ হিসেবেই। ৪ মে চিন্নাস্বামীতে ক্যামেরাম্যান তাঁর লেন্স গ্যালারিতে দীপিকার দিকে ফোকাস করার পর বাকিটা ইতিহাস। মাত্র ১৩ ঘন্টারও কম সময়ে ১.৫ লক্ষ ফলোয়ার বেড়ে যায় তাঁর ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে। বর্তমানে তাঁর ইনস্টাগ্রাম ফলোয়ার সংখ্যা ২.৬৫ লক্ষ।

শুধু তাই নয়। ফলোয়ারের পাশাপাশি আরসিবি গার্লকে নিয়ে তৈরি হয়েছে একাধিক ফেক অ্যাকাউন্টও। প্রায় ১৪০টির কাছাকাছি ফ্যান অ্যাকাউন্ট ইতিমধ্যেই তৈরি হয়েছে দীপিকা ঘোষকে নিয়ে। রাতারাতি ইন্টারনেট ও সোশ্যাল মিডিয়ায় সেনসেশন বনে যাওয়ার পর ইনস্টাগ্রাম বায়োতে দীপিকা ঘোষ নিজেই নিজেকে ‘আরসিবি গার্ল’ বলে দাবি করেন একইসঙ্গে চিন্নাস্বামীর গ্যালারি থেকে বিরাটদের সমর্থনের একটি ভিডিও পোস্ট করেন তিনি। পাশাপাশি ফেক অ্যাকাউন্ট থেকে বিরত থাকতে অনুরাগীদের উদ্দেশ্যে বার্তা দিয়েছেন দীপিকা।